• রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৮:০৯ পূর্বাহ্ন

খুটাখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তী ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন

জিয়াউল হক জিয়া,চকরিয়া / ৬২ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ৫ মে, ২০২২

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র সংসদ (খুউবিপ্রাছাস)এর উদ্যোগে আয়োজিত সুবর্ণজয়ন্তী ও পুনর্মিলনী এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ( ৫ মে) সকাল সাড়ে ৯টা র‍্যালী,আলোচনা সভা,দুপুর ১টায় ক্রেষ্ট বিতরণ,বিকেল ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বিদ্যালয়ের খোলা মাঠে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠিত হয়।

সুবর্ণজয়ন্তী ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানটি খুটাখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস.এম কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে,অধ্যাপক আ.ন.ম.সিরাজুল ইসলাম,এম বেলাল আজাদ ও সাঈদ মোঃ শাহজালালের যৌথ সঞ্চালনায়,প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন,চকরিয়া-পেকুয়া আসনের এমপি জাফর আলম।
তিনি বলেন,স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মিলন মেলা মানে,স্কুল জীবনের অতিবাহিত হওয়া সময়টুকুকে নিজের সামনে এনে স্মৃতিচারণ করা।এমন মেলবন্ধনের দ্বারা ছোট-বড় সিনিয়র-জুনিয়র সকলের সাথে পরিচয় হওয়ার সুযোগ।সেই মিলনমেলার পরিচয়ে বাড়ে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন,ভালোবাসা ও ভবিষৎতে পথচলার অফুরনীয় উৎসাহ উদ্দিপনা।যার ফলে সমাজ,পরিবার সহ নিজের মাঝে শিক্ষার মানের গুরুত্ব অপরিসীম হয়ে দাড়াঁয়।কারণ শিক্ষা ছাড়া যেমন কোনো জাতি বড় হতে পারে না।তেমনি উন্নত জাতি ও দেশকে সমৃদ্ধিশালী করে গড়ে তুলতে শিক্ষা সহ প্রতিষ্ঠানের গুরুত্ব অপরিসীম।তাই অত্র প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার জন্য যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করেছিল।উনার যদি চিরবিদায় নিয়ে থাকেন।আমি তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।এছাড়া যারা এতবড় একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন।আমি তাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।সুতরাং আমি অনুষ্ঠানের জন্য আয়োজকদের কাছে নগত আর্থিক সহযোগিতা সহ ভবিষৎতে সহযোগিতা করবো বলে প্রতিশ্রুতি দেন।

পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সাবেক চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল করিম,কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক মেয়র সরওয়ার কামাল,চকরিয়া মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ এসএম মনজুর,খুটাখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র সংসদের সভাপতি ডাঃনুরুল আবচার,সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম খাঁন প্রমূখ।
অনুষ্ঠানের আইন শৃংখলায় রক্ষার্থে কঠোর ভুমিকা রাখেন,চকরিয়া থানার একদল পুলিশ সহ তাদেরকে সার্বিক সহযোগিতা করেন,মনিরুল হক ভূট্রো,আরাফাত কামাল জিকু,মাষ্টার মনজুর আলম আরো অনেকেই।

প্রাক্তন ছাত্র বা আয়োজকেরা জানান,১৯৭৬ সাল থেকে ২০২২সালের বিদায়ী শিক্ষার্থী নিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী ও পুনর্মিলনী এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি।তবে প্রতিটি ব্যাচের দুইজন শিক্ষার্থীকে লিডার বানিয়ে,আমরা তার ব্যাচের বন্ধু/বান্ধবীকে দাওয়াতের মাধ্যমে রেজিষ্টেশনের করি।পরে সকলের আর্থিক সহযোগিতায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে সক্ষম হয়েছি।সুতরাং ভবিষৎতে যদি সবাই এভাবে স্বতঃস্ফূর্ত মনে সহযোগিতা করলে,আরো সুন্দরভাবে আয়োজন করবো জানিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category