• সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০৯:৩৫ অপরাহ্ন

গভীর রাতে চকরিয়া পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে চোরদের হানা; দরজা, জানালা ও ড্রয়ার ভাংচুর

এম, রিদুয়ানুল হক, নিজস্ব প্রতিনিধি / ২২২ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২০

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনিক ক্যাম্পাসে অবস্থিত পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে ৮ ডিসেম্বর গভীর রাতে জানালা কেটে দুর্ধর্ষ চুরির চেষ্ঠা চালিয়েছে অজ্ঞাতনামা একদল চোর। কে বা কারা চুরি করার চেষ্ঠা করেছে তা এখনো জানাতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসভবনের সন্নিকটে অবস্থিত পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক। গত কয়েকবছর ধরে সুনামের সাথে পরিচালিত হয়ে আসছে উক্ত ব্যাংকটি। যা সার্বক্ষণিক তদারকি করছে আসছেন বর্তমান চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ।

উপজেলা নির্বাহী অফিস সূত্রে জানা গেছে, ৮ডিসেম্বর গভীর রাতে চকরিয়া পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে চুরির চেষ্ঠা চালিয়ে আসবাবপত্র নষ্ট করেছে অজ্ঞাতনামা কিছু চোর। তবে গুরুত্বপূর্ণ কোনো ডকুমেন্ট নিতে পারেনি। সকালে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ইউএনও সৈয়দ শামসুল তাবরীজ। তিনি বিষয়টি চকরিয়া থানাকে অবহিত করার পর একদল পুলিশ এসে ঘটনার রহস্য উদঘাটন করার চেষ্ঠা চালাচ্ছে। তবে এখনো কোনো অপরাধীকে চিহ্নিত করতে পারেনি পুলিশ।

পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক চকরিয়া শাখার ব্যবস্থাপক মুহাম্মদ ইদ্রিস জানান, প্রতিদিনের মতো আজ সকালে যখন অফিস করতে আসি তখন দেখতে পাই, অফিসের জানালা ভাংগা। ভেতরে লক্ষ্য করে দেখি সবকিছু এলোমেলাে। সাথে সাথে বিষয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাবরীজ স্যারকে অবগত করি। তিনি দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন এবং চকরিয়া থানাকে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ দেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ আসার পর মূল ফটকের তালা খুলে ব্যাংক কর্মকর্তারা অফিসে ঢুকেন। সবকিছু যাচাই বাছাই করে দেখেন অফিসের আসবাবপত্র নষ্ট করলেও কোনো ডকুমেন্ট বা টাকা পয়সা নষ্ট করতে পারেনি অপরাধীরা।

এই ঘটনার পেছনে কারা জড়িত তা তদন্ত পূর্বক চিহ্নিত করা দরকার বলে মনে করছে অফিসের বেশিরভাগ কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য যে, সম্প্রতি কুতুবদিয়ায় বদলিকৃত সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক হাবিবুর রহমানকে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে আসছিল স্থানীয় কিছু সন্ত্রাসী। গত ৩ অক্টোবর সন্ধ্যা আনুমানিক ৭:২৫ ঘটিকার সময় হাবিবুর রহমানের ব্যক্তিগত মোবাইলে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তির মোবাইল থেকে চাঁদা দাবি ও প্রাণ নাশের হুমকি দেয়া হয়। হুমকিদাতার মোবাইল নাম্বার ০১৭৫১৭৪৬৭০১। এদিকে সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক হাবিবুর রহমান নিজের জীবনের নিরাপত্তার বিষয়ে সরাসরি চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ শামসুল তাবরীজকে অবহিত করেন। পরে ইউএনও’র পরামর্শে ৫ অক্টোবর হাবিবুর রহমান নিজেই বাদী হয়ে চকরিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। যার নং–চকরিয়া থানা ২০৯।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category