• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
ফুলবাড়ীতে খেলার মাঠ দখল মুক্ত করার দাবিতে এলাকাবাসীর মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈলে নজরুল জয়ন্তী পালিত বেনাপোলে দুই যুবকের পায়ুপথ থেকে মিললো ৩টি সোনার বার পেকুয়ায় নিহত মুক্তিযোদ্ধা কালু মিয়ার সম্পত্তির ভাগ পাননি এতিম নাতি বেলাল মাঝি! ঈদের দিনে যুবক হত্যা চেষ্টার মামলায় দুই আসামী র‌্যাবের জালে বন্দি ছাত্রলীগকে কাপুরুষ সন্ত্রাসী বানিয়েছে আ’লীগ : রিজভী যুক্তরাষ্ট্রে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গুলি, ২১ ছাত্র-শিক্ষক নিহত প্রথম সেশনে ২ উইকেট, ম্যাথুজ-ধনাঞ্জয়ে এগিয়ে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কা ইভিএম বিশেষজ্ঞদের সাথে বৈঠকে ইসি রাঙ্গামাটিকে হারিয়ে ফাইনালে চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ

চকরিয়ায় ইউপি নির্বাচনঃ দলীয় মনােনয়নে ব্যর্থ বিদ্রােহী প্রার্থীরাই এখন আওয়ামীলীগ প্রার্থীদের গলার কাঁটা!

এ কে এম ইকবাল ফারুক,চকরিয়া / ১৯০ Time View
Update : রবিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২১

আগামী ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে চকরিয়া উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। এ নির্বাচনকে সামনে রেখে মনােনয়নপত্র জমাদানের শেষদিন গত ২ নভেম্বর চেয়ারম্যান পদে মনােনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন ৭৩ প্রার্থী। এছাড়া সংরক্ষিত মেম্বার পদে ১৩৭ ও সাধারণ সদস্য পদে ৩৮৫ জন প্রার্থী মনােনয়নপত্র জমা দেন। ৪ নভেম্বর মনােনয়নপত্র যাচাই বাচাইর দিন নির্বাচনী ফরম তথ্যগত বিভ্রাট ও বিভিন্ন মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হওয়ার কারনে চেয়ারম্যান পদে চারজন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে একজন ও সাধারণ সদস্য পদে সাতজন প্রার্থীর মনােনয়নপত্র বাতিল করা হয়। যাচাই বাচাইকালে স্ব স্ব ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্ণিং কর্মকর্তাগন এসব প্রার্থীদের মনােনয়নপত্র বাতিল করেন।

বর্তমানে ১০টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনােনীত ১০জন প্রার্থী হলেও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সংখ্যা ৫৯ জন। প্রতিটি ইউনিয়নেই রয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের ছড়াছড়ি। আবার তাদের মধ্যে অনেক আওয়ামীলীগের দলীয় মনােনয়ন লাভে ব্যর্থ হয়ে বিদ্রােহী প্রার্থী হয়েছেন। মুলত: এসব বিদ্রােহী প্রার্থীরাই এখন আওয়ামীলীগ মনােনীত নৌকার প্রার্থীদের গলার কাঁটা হয়ে দাড়িয়েছেন।

১০টি ইউনিয়নে মনােনয়নপত্র জমা দেয়া বৈধ চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বদরখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মনােনীত প্রার্থী নুর হােছাইন আরিফ, স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু নাঈম মাে. হেফাজ সিকদার, বিএনপির আহসানুল কাদের চৌধুরী সাব্বির, জাকের আহমদ, আলী আকবর, মােহাম্মদ আলী, মিজানুর রহমান, শামসুদ্দিন, মাে. নাছির উদ্দিন ও জসিম উদ্দিন। পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আনােয়ারুল আরিফ দুলাল (বিএনপি), আওয়ামীলীগ মনােনীত প্রার্থী ফারহানা আফরিন মুন্না, কামারুজ্জামান সােহেল, মাে. আবদুল্লাহ, সাইফুল ইসলাম, ও সালাহ উদ্দিন। কৈয়ারবিল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মনােনীত প্রার্থী জন্নাতুল বকেয়া রেখা, বর্তমান চেয়ারম্যান মক্কী ইকবাল হােসেন, মােহাম্মদ মামুনুর রশিদ, মােহাম্মদ জকরিয়া, আফজাল উর রহমান চৌধুরী, তৌহিদুল ইসলাম, মােহাম্মদ হিশাম উদ্দিন, আনিচুর রহমান জুয়েল ও আবদুর রহমান আবেদ।

সাহারবিল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মনােনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, জুনাইদুল হক, মােহাম্মদ খানে আলম, মাহমুদুল হাসান, আবদুল আলিম, নবী হােছাইন চৌধূরী ও আবু তৈয়ব। পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মনােনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা, ওয়াহেদ ফয়েজ, মাে. সােমেউনুল ইসলাম সুমন, এডভােকেট রবিউল এহেছান, ওয়াহেদ মুরাদ, হেফাজতুর রহমান চৌধূরী টিপু, নুরুল বশর চৌধুরী বাচ্চু মিয়া ও নিয়ামত উল্লাহ। বিএমচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মনােনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী বদিউল আলম, স্বতন্ত্র বর্তমান চেয়ারম্যান এসএস জাহাংগীর আলম, নাছির উদ্দিন, মাে.আবু তৈয়ব, মােহাম্মদ আলমগীর, মাে.সােয়াইবুল ইসলাম, আরিফ মাে. অলিউল্লাহ, ও মাে.শামসুল হক (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ)।

ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মনােনীত প্রার্থী এস এম মঈনউদ্দিন আহমেদ, বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুল আলম জিকু (বিএনপি), কফিল উদ্দিন, মােহাম্মদ হােছেন মােবারক, মাে. রিদুয়ান হাফিজ চৌধুরী, মাে. সাইফুল ইসলাম, ফরিদুল আলম ও মােহাম্মদ হােছাইন। কােনাখালী ইউনিয়ন বর্তমান চেয়ারম্যান দিদারুল হক সিকদার (আ’লীগ), আওয়ামীলীগ মনােনীত প্রার্থী জাফর আলম ছিদ্দিকী, সাবেক চেয়ারম্যান রুহুল কাদের মানিক (জাতীয় পার্টি), মাে. নুরুল কবির, আনােয়ারুল ইসলাম, মােহাম্মদ ইয়াছিন ও মােহাম্মদ আবদুল মাবুদ।

লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মনােনীত প্রার্থী মহিউদ্দিন মােহাম্মদ আওরঙ্গজেব বুলেট, বর্তমান চেয়ারম্যান গােলাম মােস্তফা কাইছার (জামায়াত), সাবেক চেয়ারম্যান নুর মােহাম্মদ মানিক (বিএনপি), সাইকুল ইসলাম (আ’লীগ) ও মােহাম্মদ ওসমান (আ’লীগ)। কাকারা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মনােনীত প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান শওকত ওসমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামীলীগ নেতা সাহাব উদ্দিন ও মােহাম্মদ ইছমত-ই ইলাহী।

আগামী ১১ নভেম্বর প্রার্থীদের মনানয়নপত্র প্রত্যাহার পরবর্তী প্রতীক বরাদ্দ ও ২৮ নভেম্বর ভােট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। এবারই প্রথম ইভিএম পদ্ধতিতে ভাট গ্রহন করা হবে উপজেলার সাহারবিল ও লক্ষ্যারচর ইউনিয়নে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category