• বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
চকরিয়ায় তথ্য আপা দের সহায়তায় অস্বচ্ছল দরিদ্র ১৬০ পরিবারের মাঝে শুকনা খাবার সামগ্রী বিতরণ যশোর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালাউদ্দীন কবির পিয়াস এর পক্ষ থেকে শহরে বিভিন্ন জায়গায় ইফতার বিতরণ  যশোর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালাউদ্দীন কবির পিয়াস এর পক্ষ থেকে শহরে বিভিন্ন জায়গায় ইফতার বিতরণ   ১২দিন বন্ধ থাকবে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি চিরতরে শেষ অবুঝ দুই সন্তানের পিতা ডাকা! আনোয়ারায় রায়পুর ইউনিয়নের প্রধানমন্ত্রী উপহার পেলেন ৫’শ পরিবার ব্রীজ ভেঙ্গে যাওয়ায় দূর্ভোগে পড়েছে বিভিন্ন শ্রেণীর ব্যবসায়ীরা সিংড়ায় কলেজ ছাত্রীর লাশ উদ্ধার ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশনকৈল পৌর মার্কেটে মাছ বাজারের ঢালাই কাজের উদ্বোধন জয়নাল আবেদীন হত্যাকান্ড মগনামায় ঘেরের বাসায় আগুন, আ’লীগের সভাপতির বাড়িসহ ৩ টি বাড়ি ভাংচুর বন্ধ হতে পারে বেসরকারি কলেজের অনার্স-মাস্টার্স

চকরিয়ায় হত্যা ও ধর্ষণ মামলার আসামীর হুমকীতে দিশে হারা বাদীর পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১০২ Time View
Update : শনিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২০

চকরিয়ায় আগুণে পুড়ে একব্যক্তিকে হত্যা মামলার জেল হাজতে থাকা এক আসামীর হুমকীতে দিশেহারা হয়েছে অসহায় ওই বাদী ও তার পরিবার। শনিবার বিকেলে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এমনই অভিযোগ করেন নিহতের পরিবার ও এলাকার লোকজন।

জানাগেছে, চকরিয়ার কাকারা ও চকরিয়া পৌরসভার সীমান্তবর্তী এলাকা দিঘীর পাড়ে মুদির দোকানে ২০১৮ সালের ৫ নভেম্বর একই এলাকার গিয়াসউদ্দিন বাহিনীর গিয়াসের নেতৃত্বে আগুণ দিলে নিমিষেই দোকানটি পুড়িয়ে ছাই হয়ে যায়। মারা যান ওই দোকানে ঘুমিয়ে থাকা দোকান মালিক রায়হানউদ্দিন। এ ঘটনায় রায়হানের পিতা মামলা করলে জেল হাজতে যায় হত্যাকা-ের অন্যতম আসামী গিয়াসউদ্দিন।

জানাগেছে, রায়হান হত্যার প্রধান আসামী গিয়াসউদ্দিন একই এলাকার জনৈক গোলাম কাদেরের ছেলে। তার বিরুদ্ধে রয়েছে হত্যা, ধর্ষণ, হত্যা চেষ্টা ও প্রতারণাসহ ১৫টি মামলা রয়েছে। এক মহিলাকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এলাকার ত্রাস ওই গিয়াসউদ্দিন বর্তমানে হাজতে দিনপার করলেও তার বাহিনীর লোকজন বসে নেই এলাকায়। গিয়াসউদ্দিনের বিরুদ্ধে যারা মামলার বাদী ও সাক্ষী হয়েছেন তাদেরও একেক করে প্রাণে হত্যা হুমকী দেওয়ার অভিযোগ উঠে তার বিরুদ্ধে। শনিবার (১২ ডিসেম্বর) চকরিয়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন গিয়াসউদ্দিন বাহিনীর আগুণে পুড়ে মারা যাওয়া রায়হানের পিতা হাফেজ মৌলানা মো: ইউনুছ। এ সময় তার সাথে ছিলেন ওই এলাকার বেলাল হোছাইন সর্দার ও ইসমাইলসহ কয়েকজন প্রতিবেশী।

সংবাদ সম্মেলণে তিনি জানান, কাকারা লোটনী গ্রামে গোলাম কাদেরের ছেলে গিয়াসউদ্দিনের নেতৃত্বে তার ব্যবসায়ী ছেলে রায়হানকে আগুণে পুড়িয়ে মেরেছে, এটি ছাড়া গিয়াসউদ্দিনের বিরুদ্ধে সি আর মামলা নং ২৩১/২০১৬, সিপি মামলা নং ৪১৮/২০১৬, সি আর মামলা নং ১৪৩৪/১৮, থানায় অভিযোগ নং এস ডি আর নং ১৩১৭/১৯, জন নিরাপত্তা আইনে মামলা নং ০৩/১৯, এস,টি মামলা নং ৩৫৮/১৭, সি আর মামলা নং ১৫৬১/১৭, সিপি মামলা নং ১৩৯/১৭ এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানা মামলা নং ১৫/২০ সহ রয়েছে অস্যংখ্য মামলা। বর্তমানে এসব মামলায় জেল হাজতে রয়েছে গিয়াসউদ্দিন বাহিনীর প্রধান গিয়াস।

অভিযোগে হাফেজ মৌলানা গিয়াসউদ্দিন জানান, গিয়াসউদ্দিন বর্তমানে জেল হাজতে থাকলেও এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব করছে তার সাঙ্গপাঙ্গরা। রায়হান হত্যার দায়ের করা মামলাটি আপোষরফা করতে চাপ প্রয়োগ করছে, অন্যথায় বাড়ির অন্য সদস্যদেরকেও একই পরিণতি ভোগ করতে হবে হুমকী দিচ্ছে গিয়াস বাহিনীর লোকজন। নিহতের রায়হানের চাচা বেলাল সর্দার জানান, সন্ত্রাসীদের হুমকীতে পুরো পরিবার এখন নিরাপত্তাহীন রায়হানের পরিবার। প্রতিবেশী মো:ইসমাইল অভিযোগ করেন, হাজতে থাকা ওই গিয়াসউদ্দিন এলাকার লোকজনের আতংক, এলাকায় নারী ধর্ষণ, হত্যা ও প্রতারাণা করা তারবাহিনীর কাজ। বর্তমানে এসব মামলার বাদীরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। ত্রাস গিয়াসউদ্দিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপও চানা সংবাদসম্মেলন কারিরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category