• রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৩:০৭ পূর্বাহ্ন

চাল বিতরণের সংবাদ নিয়ে চকরিয়া পৌর কর্তৃপক্ষের বক্তব্য

বিবিসি একাত্তর ডেস্ক / ৩৬৮ Time View
Update : বুধবার, ২ জুন, ২০২১

গত ২ জুন ২০২১ ইংরেজী দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন, দৈনিক পূর্বকোণ, দৈনিক কক্সবাজার ও বিভিন্ন অনলাইনে “চকরিয়া পৌরসভায় জেলেদের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ” সংবাদটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটি সত্য নয়, উদ্দেশ্য প্রণোদিত। সংবাদ কর্মীদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদটি প্রচার করা হয়েছে।
আসল কথা হল, চকরিয়া পৌরসভায় জেলেদের চাল বিতরণে কিছু লোক লাইনে না দাাঁড়িয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে লাইন বহির্ভূতভাবে ভিতরে ডুকতে চাইলে শৃঙ্খলার দায়িত্বে নিয়োজিত মাহবুব আলম তাদের সরিয়ে দেন। পরে নিপু দাশ ক্ষিপ্ত হয়ে মাহবুবকে লাথি দিলে ঘটনার সূত্রপাত হয়। এবং মাহবুব একইভাবে তাকে ধাক্কা দিলে নিপু দাশ মাটিতে পড়ে যায়। হাসপাতালে ভর্তি করার বিষয়টি সম্পুর্ণ মিথ্যা। একটি মহল আসন্ন পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে তুচ্ছ ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে ওজনে চাল কম দিয়েছেন বলে অপপ্রচার চালিয়েছেন।
এদিকে ক্ষুদ্র মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির জেলা সভাপতি ও স্থানীয় বাসিন্দা আশরাফ আলী বলেন, উক্ত ঘটনাটি চাল কম দেওয়ার বিষয় নিয়ে ঘটেনি। বরাদ্দকৃত চাল বিতরণে কোন অনিয়ম হয়নি। লাইনে দাঁড়ানোর বিষয় নিয়ে তুচ্ছ ঘটনাটি ঘটেছে। পরবর্তিতে বিষয়টি ঢাকায় অবস্থানরত পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরীর দৃষ্টিগোচর হলে তিনি সৃষ্ট বিষয়টি দ্রুত সমাধানের জন্য পৌর সচিবসহ অন্যান্য কর্মকর্তাদের নির্দেশ প্রদান করেন। ওইদিন রাতে পক্ষদ্বয় পৌরসভা মিলনায়তনে বসে সৃষ্ট ভুল বুঝাবুঝির শান্তিপূর্ণ সমাধান নিশ্চিত করেন। উক্ত বিষয়ে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য আহবান জানানো হয়।
এদিকে ক্ষুদ্র মৎস্যজীবি সমিতির সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণ জলদাশ বলেন, একটি তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রকৃত সত্য আড়াল করে চাল কম পড়েছে বলে সংবাদ পরিবেশন করে যে মিথ্যা তথ্য প্রচার করা হয়েছে আমি তার নিন্দা জানাচ্ছি।
এছাড়া চকরিয়া পৌরসভার সার্ভিস এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার বিল্ডিং ইন্সপেক্টর রাজিফ চৌধুরী বলেন, চাল বিতরণের সময় উপজেলা থেকে নিয়োগকৃত ট্যাগ অফিসার মো.হারুন এবং মৎস্য অফিসের কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম, ডিজিএফআইয়ের প্রতিনিধির উপস্থিতিতে ৫৬ কেজি করে সুষ্টুভাবে চাল বিতরণ করা হয়েছে। চাল কম পড়ার বিষয়ে কোন ব্যক্তি কোন অভিযোগ তুলে নাই। একটি মহল বর্তমান পৌর পরিষদের সম্মান ক্ষুন্ন করার জন্য ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করেছেন। ঘটনার বিষয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে শান্তিপূর্ণ সমাধান হয়েছে।
সমাধান বৈঠকে পৌরসভার পক্ষে উপস্থিত ছিলেন, পৌর নির্বাহী কর্মকর্তা মাসউদ মোর্শেদ, পৌরসভা সার্ভিস এসাসিয়েশনের কেন্দ্রীয় নেতা জাহেদ উদ্দিন, প্রধান সহকারী মোস্তাক আহমদ। এছাড়া জেলেদের পক্ষে তাদের গুরুত্বপূর্ণ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category