• মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৩ অপরাহ্ন

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে পুলিশ এলেই থুতনির মাস্ক উঠছে মুখে

বিজয় রায় ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি / ৯৫ Time View
Update : শুক্রবার, ২৫ জুন, ২০২১

প্রশাসন চোখের আড়াল হলেই স্বাস্থ্যবিধির ধার ধারে না কেউ। তখন মুখের মাস্ক চলে যায় থুতনিতে। অসচেতন মানুষ সামাজিক দূরত্ব ভেঙে ফিরে যায় স্বাভাবিক অবস্থায়। এমন ইঁদুর-বিড়াল খেলার মধ্য দিয়ে চলেছে ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে। এমনটাই দেখা গেছে উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজারের দৃশ্য লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে।
হঠাৎ করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় বৃহস্পতিবার ২৪ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ঠাকুরগাঁও জেলার সকল উপজেলায় এই কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে লকডাউন ঘোষণা দেয় জেলা প্রশাসন।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে ঠাকুরগাঁও সদরসহ প্রতিটি উপজেলায়।

জেলা-উপজেলাগুলোয় প্রতিদিনি হু হু করে বাড়ছে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা। স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ না করলে মহামারি আকার ধারণ করবে করোনার সংক্রমণ। এজন্য প্রশাসন কঠোর অবস্থানে গেলেও মানুষ তা মানতে নারাজ। ফাঁক পেলেই বিধি ভঙ্গের প্রতিযোগিতায় নেমে পড়ছে সবাই।

এদিকে, লকডাইন বাস্তবায়নে সকাল থেকেই মাঠে নামে উপজেলা প্রশাসন। শহরের প্রবেশ মুখে বেরিকেড দিয়ে বসানো হয় পুলিশি চৌকি। তারপরও প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে মোটরসাইকেল, ইজিবাইক, অটোভ্যান নিয়ে বের হয় যে যার মতো। তখন এদের বিরুদ্ধে অ্যাকশনে যায় প্রশাসন। উপজেলা শহরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে এসব ক্ষুদ্র যানবাহনের চাবি কেড়ে নেওয়া হয়। যার সংখ্যা দুই শতাধিক। এছাড়া, নিয়ম ভেঙে দোকান খোলা রাখায় জরিমানাও করা হয় ব্যবসায়ীদের।

সহকারি কমিশনার (ভূমি) ভারপ্রাপ্ত ইউএন প্রীতম সাহা বলেন, লকডাউন বাস্তবায়নে উপজেলার সর্বত্র প্রশসনের তৎপরতা চলছে। আগের দিন বুধবার উপজেলার সবখানেই মাইকিং করে করোনারোধে স্বাস্থ্যবিধি পালন ও লকডাউন বাস্তবায়নের ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক করা হয়েছে। তারপরও স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে সবাই যেনো উদাসীন। এক এলাকায় অভিযান চললে অন্য এলাকায় নিয়ম ভাঙার চেষ্টা করে মানুষ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category