• শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০৭ পূর্বাহ্ন

ডুলাহাজারায় ২০ শতক ভিটেমাটি জবরদখল চেষ্টার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক,চকরিয়া / ২৬০ Time View
Update : রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২০

চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নে তফসিল ভুক্ত ২০ শতক ভিটেমাটি জবর দখল চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় ৪নং ওয়ার্ড উলুবনিয়া গ্রামের এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে তোলপাড় চলছে। প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে চলছে সাজানো ঘটনা, মিথ্যা মামলা ও সামাজিক ফেসবুকে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। এমনই অভিযোগ ভুক্তভোগীদের।

এর থেকে পরিত্রাণ পেতে ওই এলাকার হাজী আবদুল হাদীর পুত্র নেজাম উদ্দিন বাদী হয়ে গত ২১ নভেম্বর চকরিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এতে আসামী করা হয়েছে একই এলাকার সিরাজ মিয়া, ইলিয়াছ মিয়া, আছমাউল হুসনা লালু, সুমিসহ মোট ১২ জন।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, আবদুল হাদী ও মরহুমা ফাতেমা খাতুনের নামীয় ৫৬০ নং খতিয়ানের সৃজিত নামজারী জমাভাগ ৯৯০, ৯৭১ নং খতিয়ানের ২৩৩১ নং দাগের খরিদা স্বত্ব ২০ শতক দখলীয় জমি হয়। এ জমি খরিদের পর থেকে বসত ভিটা নির্মাণ করে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ ও বাঁশের বাগান করেছি। ভিটার সীমানার চরদিকে পাকা পিলার ও কাঁটা তারের বেড়া দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ভােগ দখল করে আসছি। আমাদের পিতা-মাতার নামে নামজারি জমাভাগ খতিয়ান সৃজন পূর্বক এ জমির সন সন সরকারী খাজনাদি পরিশােধ করা আসছি।

এ জমিতে বিবাদীগনের ষত্ব আছে দাবী করে জবর-দখলের অপচেষ্টায় লিপ্ত হইয়া আমাদের বিরুদ্ধে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এম.আর মামলা নং- ১৭২/২০১৯ইং, ধারা- ১৪৪ ফৌঃকাঃবিঃ মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় চকরিয়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও জমিতে শান্তি-শৃখলা রক্ষায় চকরিয়া থানাকে নির্দেশনা প্রদান করেন।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক বসত ভিটা আমাদের দখলে থাকার সত্যতা পাওয়ায় আমাদের পক্ষে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। তদন্ত প্রতিবেদন পক্ষে থাকায় বিবাদীরা জবরদখল চেষ্টা চালালে আমি বাদী হয়ে ১৪৪ ফৌঃকাঃবি ধারায় মামলা ১১৭২/১৯২ দায়ের করি। বর্তমানে মামলা ২টি বিচারাধীন আছে।
বিচারাধীন মামলার ১৪৪ ফৌঃকাঃবিঃ ধারার নিষেধাজ্ঞা অমান্যতা করিয়া গায়ের জোরে এ ভিটেমাটির জবরদখল চেষ্টা চালায় বিবাদীগণ। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২১ নভেম্বর সকাল সাড়ে ১১ টায় বিবাদীগণ বসতভিটের বাঁশ, গাছ কেটে সীমানার ৬টি পাকা পিলার উপড়ে নিয়ে যায়। এতে সর্বমােট ১ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন হয বলে জানায় বাদি। এষময় ক্ষিপ্ত হইয়া আমাদেরকে অশ্লীল গালি-গালাজ ও প্রাণে হত্যার উদ্দেেশ্যে ধাওয়া করে। আমরা প্রাণ ভয়ে ঘরে প্রবেশ করিয়া আত্মরক্ষা করি। পরে তদের পক্ষের এক মহিলাকে আহত সাজিয়ে হাসপাতাল থেকে এম.সি গ্রহণ পূর্বক আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের
করে।

তফসিলের এ জমিতে শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে বিবাদীগণের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থার দাবী ভুক্তভোগী নেজাম উদ্দিনের। বাদীর ভাই জামাল উদ্দিন হাদীর অভিযোগ তার বিরুদ্ধে ইলিয়াছ পাশা নামের ফেসবুক আইডিতে মিথ্যা অভিযোগে অপপ্রচার চালাচ্ছে। এ নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলেও জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category