• মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৮ অপরাহ্ন

পেকুয়ায় রাতেই নির্মিত হল পলিথিনের ঝুঁপড়ি ঘর

পেকুয়া প্রতিনিধি: / ১০৩ Time View
Update : শুক্রবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

পেকুয়ায় গভীর রাতে নির্মিত হয়েছে অবৈধ স্থাপনা। বন্দোবস্তী মূলে প্রাপ্ত ভোগ দখলীয় ব্যক্তি বাড়ি নির্মাণের জন্য মাটি ভরাট করে। সেখানে খনন করা হয়েছে একটি পুকুর। বাড়ি নির্মাণ করতে তৈরী করা হয়েছে ঘরভিটাও। কিন্তু হঠাৎ গভীর রাতে একটি দখলবাজ চক্র সেখানে অনুপ্রবেশ করে। মালিকের বাড়ি অন্য গ্রামে। সবেমাত্র নতুন ভিটা তৈরী করেছে। ওই সুবাধে দখলবাজ চক্র নিজ মহল্লা থেকে গিয়ে সেখানে পলিথিন মোড়ানো একটি ঝুপড়ি ঘর তৈরী করে। খবর পেয়ে রাজাখালী ইউপির দু’তিনজন গ্রাম পুলিশ রাতে সেখানে গিয়ে জবর দখল প্রক্রিয়ায় বাধা দেয়। কিন্তু ভাড়াটে অস্ত্রধারীদের ভয়ে তারা সেখান থেকে দ্রুত চলে যান। পেকুয়া থানা পুলিশকে রাতে মুঠোফোনে বিষয়টি জানানো হয়েছিল। পুলিশও ওই তৎপরতা প্রতিহত করতে সেখানে পৌছেননি। রাজাখালীর পুলিশ ফাঁড়ির জোয়ানদেরও সহায়তা চাওয়া হয়েছে। তারাও রাত্রি হওয়ায় সেখানে যেতে বিব্রতবোধ করেন। ১৬ ফেব্রুয়ারী রাতে উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের বামুলারপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সুত্র জানায়, ৮৪ শতক জমির বন্দোবস্তী মালিক ছরিপাড়ার ছৈয়দ আহমদের পুত্র জহিরুল আলম গং। জায়গার অবস্থান বামুলারপাড়ায়। মালিক প্রায় ২০ শতক জায়গায় ঘর নির্মান কাজ শুরু করে। গত ১ মাস আগে থেকে ওই স্থানে ঘরভিটা তৈরীর কাজ করছিলেন। মাটি ভরাট কাজ সমাপ্ত করে ঘরনির্মাণ শুরুর আগ মুুহুর্তে ওই স্থানে জবর দখল প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। স্থানীয় সুত্র জানায়, বামুলারপাড়ার মৃত নুরুল আলমের পুত্র মনির আলম, তার ভাই ইদ্রিস, ফারুকসহ ৫/৬ জনের দুবৃর্ত্তরা ১৬ ফেব্রুয়ারী গভীর রাতে জহিরুল আলম প্রকাশ বাদশাহ বসতভিটার জন্য মাটি ভরাট অংশে অনুপ্রবেশ করে। তারা পলিথিন মোড়ানো একটি ঝুপড়ি ঘর তৈরী করে। জহিরুল আলম বাদশাহ জানান, আমি পরিস্থিতি আঁচ পেয়েছিলাম। এর আগে ইউপির চেয়ারম্যান ও স্থানীয় মেম্বারকে বিষয়টি অবহিত করি। ওই দিন রাতে মনির আলম ভাড়াটে অস্ত্রধারী নিয়ে আমার তৈরী বসতভিটায় অনুপ্রবেশ করে। আমার বাড়ি ছরিপাড়ায় হওয়াতে তারা বাড়ির পাশের্^র জায়গায় এ কাজ করেছে। আমি পুলিশ কর্মকর্তা খাইরুল সাহেবকে ফোন দিয়েছি। কিন্তু তিনি রাতে ফোন ধরেননি। চেয়ারম্যানকে বলেছি। চেয়ারম্যান দফাদারকে নিয়ে যেতে বলেছিলেন। গ্রাম পুলিশ গিয়েছিল। কিন্তু তারা অস্ত্রধারী হওয়ায় চৌকিদার ভয় পেয়ে চলে আসে। রাজাখালী বিটের পুলিশকেও বিষয়টি জানিয়েছিলাম। বামুলারপাড়ার কালা মিয়ার স্ত্রী দিলোয়ারা জানান, মাটি ভরাট করেছে বাদশাহ। মনির গং দু’দিন আগে রাতে পলিথিনের ঘর করেছে। নুরুল হোসেনের স্ত্রী ছেনুয়ারা জানান, আমি স্পষ্ট বলছি এটি বাদশাহর মাটি কাটা অংশে তারা ঢুকে গেছে। জয়নালের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম জানান, জায়গাটি আমার বাড়ির নিকট। ১ মাস আগে বাদশাহ মাটি কেটেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category