• শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:১৭ অপরাহ্ন

পেকুয়ায় ৩ সহোদরের মুক্তি দাবীতে টইটং বাজারে মানববন্ধন

পেকুয়া প্রতিনিধি / ১৭৯ Time View
Update : বুধবার, ১১ নভেম্বর, ২০২০


পেকুয়ায় রক সেইড মুঠোফোন দোকানের মালিক ৩ সহোদরের মুক্তি দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্টিত হয়েছে। মানববন্ধন থেকে ৩ সহোদরকে নির্দোষ দাবী করা হয়েছে। অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারসহ মিথ্যা অভিযোগ থেকে ৩ সহোদরকে দায়ীমুক্তিসহ মামলা নি:শর্ত মুক্তি চাওয়া হয়েছে। ১১ নভেম্বর (বুধবার) বিকেলে উপজেলার সীমান্তবর্তী ইউনিয়ন টইটংয়ের প্রধান বাণিজ্যিক কেন্দ্র টইটং বাজারে মানববন্ধন অনুষ্টিত হয়েছে। সুত্র জানায়, ৭ নভেম্বর বুধবার সন্ধ্যার দিকে পুলিশের বিশেষ গোয়েন্দা শাখা ডিবির একটি টীম টইটং বাজার ও পেকুয়া কবির আহমদ চৌধুরী বাজারের এসডি সিটি সেন্টারে পৃথক অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় পৃথক দুটি মুঠোফোন দোকান থেকে বেশ কিছু মুঠোফোনসহ ৩ সহোদরকে আটক করা হয়। টইটং বাজারের রক সেইড ও পেকুয়া এসডি সিটি সেন্টারে অভিযান দেয়া পৃথক দোকান দুটির মালিক তারা ৩ ভাই। ওই দিন দুটি দোকান থেকে মোহাম্মদ হোছাইন, দেলোয়ার হোছাইন ও দিদার হোছাইন নামক ৩ জনকে ডিবি পুলিশ আটক করে। এরা ৩ জনই আপন সহোদর। টইটং ইউনিয়নের পূর্ব টইটংয়ের মৃত মৌলভী আবুল হোছাইনের ছেলে। পেকুয়া থানায় একটি মামলা রেকর্ড হয়েছে। আটক তিন ভাই বর্তমানে জেল হাজতে আছেন। এ দিকে ডিবি পুলিশের অভিযানে মুঠোফোনসহ আটক তিন সহোদরের মুক্তি দাবীতে টইটং বাজারে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে। ওই দিন বিকেলে আটক ৩ সহোদরের নি:শর্ত মুক্তি ও মামলা থেকে অব্যাহতি চেয়ে ওই মানববন্ধনে বিপুল পরিমাণ লোকজন জড়ো হন। এবিসি সড়কের টইটং বাজারের মূল পয়েন্টে অনুষ্টিত মানববন্ধনে টইটং বাজারের ব্যবসায়ীসহ সকল স্তরের লোকজন সমবেত হন। বণিক সমিতির নব নির্বাচিত নেতৃবৃন্দ,জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক অঙ্গনের শীর্ষ স্থানীয় নেতা-কর্মীরাও সেখানে সমবেত হন। এ সময় ৩ ব্যবসায়ী সহোদরের মুক্তির দাবীতে তারা সংহতি প্রকাশ করেন। সড়কের দু’পাশে অবস্থানরত শান্তিপূর্ন মানববন্ধন কর্মসূচী থেকে আটক ৩ ভাইকে নির্দোষ দাবী করা হয়েছে। এ সময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বণিক সমিতি ও ব্যবসায়ীরা সকলকে উদ্দেশ্য করে বলেন, হোছাইনসহ আটক ৩ ভাই নির্দোষ। সরকারের প্রশাসন ও বিচার বিভাগকে আহবান করছি ব্যবসায়ী এ ৩ ভাইকে অবিচার করা হয়েছে। এরা ষড়যন্ত্রের শিকার। এ সময় পেকুয়ার কর্মরত সাংবাদিকদের এক প্রেস ব্রিফিংয়ে টইটং বাজারের বণিক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আলম প্রকাশ মোহাম্মদ মাঝি বলেন, আমরা সরকারের প্রশাসন ও রাষ্ট্রযন্ত্রের প্রতি অত্যন্ত শ্রদ্ধাশীল। তবে হোছাইনসহ তার তিন ভাই আটক হওয়ায় ব্যবসা বাণিজ্য থেমে গেছে। আমি ৫ বছর আগে থেকে এখানে দায়িত্বে আছি। দোকান থেকে অবৈধ মুঠোফোন বিক্রি হয়েছে এ খবর আমরা কখনো পায়নি। কক্সবাজার জেলা ও চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ক্রেতারা এসে এখান থেকে মোবাইল ফোন কিনে নেন। হোছাইনের মা পূর্ব টইটংয়ের মৃত মৌলভী আবুল হোছাইনের স্ত্রী হাজী মালেকা বেগম জানান, আমার ছেলেরা নির্দোষ। কিছু কুচক্রীমহল আমার ছেলেদের পিছুনে লেগে গেছে। এরাই মূলত এ ষড়যন্ত্র করেছে। আমার স্বামী আগে থেকে সম্পদশালী। বিলে প্রায় ২৫ একর জমি রয়েছে। মোবাইলের ব্যবসা করে আমরা সম্পদশালী হয়নি। আমার ছেলেরা মোবাইলের ব্যবসার পাশাপাশি আরও অন্যান্য ব্যবসা বাণিজ্য করে। ৩ ছেলে জেলে গেছে। মা হিসেবে আমি কিভাবে এর কঠিন যন্ত্রণা ভোগ করছি। আমার ছেলেদের মুক্তির দাবী জানায়। প্রধানমন্ত্রী ও সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে মা হিসেবে আটক ৩ ছেলের মানবিক সহায়তার জন্য রাষ্ট্রপক্ষকে অনুরোধ করছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category