• শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:১৩ অপরাহ্ন

মোংলায় সিটি মেয়র বলেন যারা গরীবের হক মরছে তাদের আসন্ন ইউপি নির্বাচনে নির্বাচিত করবেন না

শেখ রাসেল. মোংলা উপজেলা প্রতিনিধি. / ১০০ Time View
Update : মঙ্গলবার, ২ মার্চ, ২০২১

বঙ্গবন্ধু হত্যার সাথে জিয়াউর রহমান সরাসরি যুক্ত ছিলেন। বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের যাতে বিচার না হয় সেজন্য জিয়াউর রহমান আইনও করছিলেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা পরবর্তীত মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংস করার জন্য যা যা করা দরকার তা করছিলেন জিয়াউর রহমান। ৩৬ হাজার গ্রেফতারকৃত রাজাকার-আলবদর-আলশাম্সক মুক্তি দিয়েছিলেন জিয়াউর রহমান যাদের মধ্য ১২ হাজারের নামে মামলা ছিলো। সঠিক মুক্তিযোদ্ধারা পক্ষে থাকবে না তাই রাজাকার-আলবদর-আলশাম্সদর নিয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চেয়েছে বিএনপি। ২ মার্চ মঙ্গলবার সকালে মোংলার চাঁদপাই ইউনিয়ন পরিষদ চত্বর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ আয়োজিত কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি কপার্রেশনের মেয়র বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক একথা বলেন।
মঙ্গলবার সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত কর্মী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন চাঁদপাই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগর সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম। সমাবেশ বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাগেরহাট জেলা আওয়ামীলীগর সহ-সভাপতি সাবেক মোংলা উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ ইদ্রিস আলী ইজারদার, জেলা আওয়ামীলীগর অন্যতম সহ-সভাপতি সাবেক রামপাল উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোল্লা আব্দুর রউফ, উপজেলা আওয়ামীলীগর সভাপতি অধ্যক্ষ সুনীল কুমার বিশ্বাস, উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা আওয়ামীলীগর সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন ও পৌর আওয়ামীলীগর সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান জসিম। অন্যান্যদের মধ্য বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ নেতা গালাম হোসেন হাওলাদার, পীযুষ কান্তি মজুমদার ও ৯টি ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগর সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ। কর্মী সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন মোংলা পোর্ট পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আব্দুস সালাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান গাজী আকবর হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান নিখিল চন্দ্র রায়, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইস্রাফিল হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান নারজিনা বেগম নাজিন, ইউপি চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা মাহমুদ হাসান ছোটমনি, উৎপল মন্ডল, তরফদার মাত্তালিব মুক্ত, মোঃ আবু হানিফ প্রমূখ। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা সিটি মেয়র আরো বলেন ইউপি নির্বাচনে যারা অংশগ্রহণ করবেনা তারা ইতিহাসের আস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হবে। আমরা চাই সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে চেয়ারম্যানগণ নির্বাচিত হোক। তাতে যিনি নির্বাচিত হবেন নিজের মধ্য গৌরব অনুভব করবেন এবং তার মধ্য কাজ করার আগ্রহ থাকবে। কাজ করলে সুফল পাওয়া যায়। দুঃসময় যারা সাথে ছিলো তারাই আসল কর্মী। পরীক্ষিতদের দায়িত্বশীল পদে দিতে হবে। দেশে ৫২% নারী ভোটার। দেশ পরিচালনা করছেন শেখ হাসিনা। স্পীকার, সংসদ উপনেতা এবং বিরোধী দলনেতা নারী। বক্তৃতায় নয় শেখ হাসিনা বাস্তব নারীর ক্ষমতায়নের জন্য কাজ করছেন। ভোটারদের উদ্দ্যশ্যে সিটি মেয়র বলেন যারা গরীবের হক মরছে তাদের আসন্ন ইউপি নির্বাচনে নির্বাচিত করবেন না। দুর্নীতিবাজদের ভোট দিবেন না।##


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category