• বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
পেকুয়ায় দুই হাজতি মেম্বার নির্বাচিত এবারে দুই নারীসহ আমিরাত থেকে ২৬ জন প্রবাসী সিআইপির মর্যাদা পেয়েছেন সাবেক সাংসদ শাহাদাত হোসেন চৌধুরীর জানাজা সম্পন্ন, পারিবারিক কবরস্থানে দাফন কবি হিমেল বরকত’র সাহিত্যে বিপন্ন মানুষের কন্ঠস্বর ঠাঁই পেয়েছে নির্বাচনী সহিংসতা: পেকুয়ায় আ’লীগ নেতার বসতবাড়ি ভাংচুর চকোবি হোস্টেলের সমাপনি ক্লাস আনুষ্ঠানিকভাবে সম্পন্ন ঠাকুরগাঁও নির্বাচন সহিংসতায় বিজিবি’র গুলিতে নিহত ৩ আহত ৫ ঠাকুরগাঁওয়ে তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে ১৪টি নৌকা ৪টি সতন্ত্র প্রার্থীর জয়লাভ সাবেক সাংসদ এডভোকেট শাহাদাত হোসেন চৌধুরী আর নেই টেকনাফ সমিতি ইউএই’র বার্ষিক কর্মশালা ও মতবিনিময় সভা’২১ অনুষ্ঠিত

রাণীশংকৈলে শিরোমনি ক্লিনিকে আবারো প্রসূতির মৃত্যু

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি / ১৭৭ Time View
Update : রবিবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২০

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে লাইসেন্স বিহীন শিরোমনি কিøনিকে ৪ মাসের মাথায় আবারো প্রসূতি মার মৃত্যু ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। রুগীর অভিভাবক সূত্রে জানাগেছে, শনিবার রাত ৭টায় উপজেলার করিয়া কলন্দা গ্রামের লক্ষির স্ত্রী আদরী ৩সন্তানের জননী,তার বাচ্চা ইস্যুর সময় হলে তার অভিভাবকরা তাকে শিরোমনি ক্লিনিকে নিয়ে যায়। এসময় ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তাকে ওটি রুমে নিয়ে যায়। গর্ভবতী মাকে নরমালে বাচ্চা ইস্যুর চেস্টা করার পর ব্যর্থ হলে ক্লিনিকের মালিক অবসর প্রাপ্ত ডাক্তার কমলা কান্ত বর্ম্মন অস্ত্রোপচার করে জমজ দুটি সন্তান বের করে। একটি মেয়ে এবং অপরটি ছেলে।
ম্যানেজার অভি বলেন, সিজারের পর রুগীর একলেমসিয়া দেখা যায়। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাত ১০টায় দিনাজপুর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। হাসপাতালে যাওয়ার আগেই পথিমধ্যে রুগী মারা যায়। তিনি বলেন, জমজ শিশু দুটি এখনো সুস্থ্য রয়েছে। ক্লিনিকের অব্যবস্থাপনায় কেড়ে নিচ্ছে নিরহ নিষ্পাপ নবজাতক শিশুসহ গর্ভবর্তী মায়ের প্রাণ। এমন অভিযোগ উঠেছে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।
জানাগেছে, গত ২৫ আগষ্ট শিরোমনি ক্লিনিকে একই ঘটনায় উপজেলার কালুগাঁও গ্রামের সুরেনের স্ত্রী মালা রাণীর সিজারের ১৫ মিনিট পর শিশু মারা যায়। ইতিপূর্বে আরো ৩শিশুর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে বলে সূত্রে জানাগেছে। শিরোমনি ক্লিনিকে খোজ নিয়ে জানাগেছে, একজন অবসর প্রাপ্ত ডাক্তার এই কিøনিকের মালিক। তিনি মানছেনা সরকারী কোন নিয়ম নীতি। অনিয়ম ভাবে চালিয়ে যাচ্ছে ক্লিনিক এবং ডায়াগনষ্টিক সেন্টার। অদক্ষ টেকনিশিয়ান, নার্সসহ কর্তৃপক্ষের আতœীয় স্বজনদের নিয়ে চলছে সিজারিং এবং রুগীর বিভিন্ন পরিক্ষা নিরিক্ষার কাজ। গ্রামগঞ্জের সহজ সরল মানুষদের কাছে অবৈধ পন্থায় হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। ভুক্তভোগী রুগীর অভিভাবকরা বলেন এধরনের ঘটনার পরেও নেই কোন জবাবদিহী।
এপ্রসঙ্গে ক্লিনিকের মালিক ডাঃ কমলা কান্ত বর্ম্মন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গর্ভবর্তী মাকে অপারেশনের আধা ঘন্টা পর পেসার হাই হওয়ায় ব্রেন্টস্টক করে। তাৎক্ষনিক ভাবে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। হাসপাতাল যাওয়ার সময় পথিমধ্যে রুগী মারা যায়। উপজেলা স্বাস্থ্য পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুস সামাদ চৌধুরী বলেন, আমি কিছুই জানিনা, তবে শুনেছি কি যেন শিরোমনিতে হয়েছে। আগে বিস্তারিত জানি তার পর না হয় বলবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category