• শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০২:২১ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম
ঠাকুরগাঁও রানীশংকৈলে প্রধান শিক্ষকদের মতবিনিময় ও রিটার্নস সভা অনুষ্ঠিত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গৃহবধূর নগ্ন ভিডিও তৈরি করে ফেসবুকে ছেড়ে দেওয়ার হুমকির অভিযোগ বিশ্বে তেলের দাম কমলেও দেশে কেন কমছে না? কারণ জানালেন মন্ত্রী পেকুয়ায় অপহরনের অভিযোগ তুলে অসহায় পরিবারকে হয়রানীর অভিযোগ! পেকুয়ায় পূর্ব শত্রুতার জেরে দোকানীকে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ গাজায় ইসরাইলি হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৭ পিঁপড়ে গোঁ ধরেছে, উড়বেই ইসরাইলি বিমানের জন্য আকাশ উন্মুক্ত করবে না ওমান জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে সমাবেশ থেকে সরকারের পদত্যাগের ডাক বিএনপির শিল্প-কারখানা এলাকাভিত্তিক এক দিন বন্ধ রাখতে প্রজ্ঞাপন জারি

পেকুয়ায় হামলায় গৃহবধূ আহত

পেকুয়া প্রতিনিধি / ১৩০ Time View
আপডেট : সোমবার, ২৫ জুলাই, ২০২২

কক্সবাজারের পেকুয়ায় হামলায় এক গৃহবধূ আহত হয়েছে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। রবিবার (২৪ জুলাই) রাত ১১ টার দিকে উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের মরিচ্যাদিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত গৃহবধূর নাম হাদিছা বেগম (৪০)। তিনি ওই এলাকার আবু তাহেরের স্ত্রী। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বসতভিটার ১ শতক জায়গা নিয়ে আবু তাহের ও বজল করিমের পুত্র আবু ছিদ্দিক গংদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এর সুত্র ধরে রবিবার সকাল ১০ টার দিকে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। আবু ছিদ্দিক গং বসতভিটার ১ শতক জায়গা দখলে নিতে সেখানে পৌছেন। এ সময় স্থানীয়রা এসে উত্তেজনা প্রশমিত করে। তবে একই দিন রাত ১১ টার দিকে আবু ছিদ্দিক, তার ভাই কামাল হোসেন, মানিকের পুত্র জোনাইদ, আবু তৈয়ব, মানিকসহ ৬/৭ জনের উত্তেজিত লোকজন আবু তাহেরের বাড়িতে হানা দেয়। এ সময় তারা আবু তাহেরের স্ত্রী হাদিছা বেগমকে পিটিয়ে আহত করে। প্রত্যক্ষদর্শী নাছিমা আক্তার জানান, আবু ছিদ্দিকসহ হামলাকারীরা হাদিছাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। এরপর তাকে টানা হ্যাচড়ার এক পর্যায়ে তাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করা হয়। চুলের মুঠি ধরে টেনে ঘর থেকে ওই নারীকে বের করে দেয়া হয়। হাদিছার স্বামী আবু তাহের জানান, আমি বাবুচির কাজ করি। থাকি বানিয়ারচর মাদ্রাসায়। বাড়িতে ছিলাম না। এসে তারা আমার স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম করে। গলাচেপে ধরে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা চেষ্টা চালায়। আমার ঘরটি এখন তারা দখল করে ফেলেছে। হাদিছার দুলাভাই বদিউল আলম জানান, আমরা হাদিছাকে হাসপাতালে নিয়ে এসেছি। পরিষদে বিচার আছে। কিন্তু তারা এ সব মানে না। হাদিছা বেগম জানান, আমাকে কাপড় ধরে টানা হ্যাচড়া করেছে। হাসপাতালে ভর্তি রয়েছি। পেকুয়া থানার ওসি ফরহাদ আলী জানান, লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো ক্যাটাগরি