• সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:১৩ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম
হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে বজ্রপাতে দুই কৃষকের মৃত্যু যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর উদ্দেগে ব্লাড গ্রুপ ও মেডিকেল ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠান কালীগঞ্জে সাব-ইজারাদারের বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীর অভিযোগ  “মায়ের দাবী শ্বাসরোধে হত্যা” চকরিয়ায় এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার পঞ্চগড়ের বোদায় নৌকা ডুবিতে ২৪ জনের মৃত্যু ঈশ্বরদীতে বিএনপি’র নেতা আকরাম আলী খান সঞ্জুর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী পালন ঝিনাইদহ জেলা পরিষদের নির্বাচন সলড়াই জমে উঠেছে কোটচাঁদপুরে যুবদলের প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশ ঝিনাইদহে প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল সাপের কামড়ে মৃত্যু বলে প্রচার সিংড়ায় ক্যাবল অপারেটরের সংবাদ সম্মেলন

চকরিয়ায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আসবাবপত্র বিক্রির অভিযোগ প্রধান শিক্ষিকের বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া / ৯৯ Time View
আপডেট : সোমবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২

কক্সবাজারের চকরিয়ায় প্রধান শিক্ষিক রাশেদা বেগম কর্তৃক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আসবাবপত্র বিক্রি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে স্থানীয় লোকজন এসব মালামাল জব্দ করে।

এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজনের মাঝে বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। তারা প্রধান শিক্ষিকার বিচার চেয়ে বিক্ষোভও করেছেন।

হারবাং ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ওয়ালিদ বিন ফরহাদ বলেন, দুপুরে স্কুলের একটি আলমিরা, চারটি লোহার রড় ও তিনটি টিন রিকশা ভ্যানে করে নিয়ে যাওয়ার খবর পাই। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি চেয়ারম্যানকে জানানোর পর এসব মালামাল জব্দ করা হয়।

স্কুলের দাতা পরিবারের সদস্য ডা. শামসুল ইসলাম বলেন, এর আগেও স্কুলের পুরাতন ভবনের বিভিন্ন মালামাল লোহার রড় ও স্কুলের বইপত্র বিক্রি করেছেন প্রধান শিক্ষকা রাশেদা বেগম। তিনি দীর্ঘদিন ধরে এই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা হিসেবে রয়েছেন। বিভিন্ন সময়ে স্কুলের অধ্যয়নরত ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকদের সাথে দুর্ব্যবহার করেন বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

হারবাং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেহেরাজ উদ্দিন মিরাজ বলেন, প্রধান শিক্ষক রাশেদা বেগম কর্তৃক আসবাবপত্র বিক্রির উদ্যেশ্যে পাচারের সময় স্থানীয় লোকজনের কাছে থেকে খবর পেয়ে চৌকিদার পাঠিয়ে মালামাল জব্দ করে ইউপি কার্যালয়ে রাখা হয়েছে।

এদিকে প্রধান শিক্ষিকা রাশেদা বেগমের ব্যবহৃত মোবাইলে কল দিলে সংযোগ পাওয়া যায়নি।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেপি দেওয়ান বলেন, বিষয়টি জেনেছি। এ বিষয়ে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো ক্যাটাগরি