বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১০:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
চুরির অপবাদে মাদ্রাসা ছাত্রকে হাত-পা বেঁধে অমানবিক নির্যাতন! ঠাকুরগাঁও রানীশংকৈলে টিউবওয়েল বিতরণ করলেন এমপি সুজন পেকুয়ায় ব্যক্তিগত উদ্যোগে বেড়িবাঁধ সংস্কার ঠাকুরগাঁও রানীশংকৈলে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহের সমাপনি পুলিশ সুপারের প্রেস ব্রিফিং: ঠাকুরগাঁওয়ে রেজিয়া হত্যার রহস্য উদঘাটন, গ্রেফতার-২ ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে প্রচারণা ঠাকুরগাঁওয়ে পশুর হাটে অতিরিক্ত টোল আদায় প্রশাসন নীরব বাংলাদেশ সনাতনী সেবক সংঘ পরিচালিত গীতা শিক্ষার্থীদের বার্ষিক মূল্যায়ণ পরীক্ষা সম্পন্ন কক্সবাজার জেলায় ১০ম বারের মতো শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারি অফিসার মহসিন ও শ্রেষ্ঠ অস্ত্র উদ্ধারকারী সোলায়মান চকরিয়ায় অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার

পেকুয়ায় ১ মাসেও উদ্ধার হয়নি লুটকৃত ১০ টি গরু

পেকুয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৩০৬ Time View

কক্সবাজারের পেকুয়ায় প্রায় ১ মাস পূর্বে লুটকৃত ১০ টি গরু এখনো উদ্ধার হয়নি। সৈনিকলীগ সভাপতির খামার থেকে গভীর রাতে দুবৃর্ত্তরা প্রায় ১৮ লক্ষ টাকা মূল্যের ১০ টি গরু নিয়ে যায়। ১ মাস পেরিয়ে গেলেও উদঘাটন হয়নি গরু লুটের এ ঘটনা। তবে ক্ষতিগ্রস্ত পক্ষ চিহ্নিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে চকরিয়া সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নালিশি অভিযোগ রুজু করে। পেকুয়া থানা পুলিশকে এর তদন্তভার ন্যস্ত করা হয়।
মামলার আর্জি সুত্রে জানা গেছে, চলতি ২০২৪ সালের ৬ মার্চ দিবাগত রাত ২ টার দিকে রাজাখালী ইউনিয়নের টেকঘোনাপাড়া মো: ফোরকানের খামার থেকে ১০টি গরু লুট করে নিয়ে যায়। একদল দুবৃর্ত্তরা স্বশস্ত্র অবস্থায় আতংক ও ভীতি ছড়িয়ে গরুগুলি গাড়িতে করে অজ্ঞাত স্থানে লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় ফোরকানের স্বজনসহ স্থানীয়রা সেখানে উপস্থিত হওয়ার চেষ্টা করে। তবে দুবৃর্ত্তরা তাদের ছত্রভঙ্গ করতে ফাঁকা গুলি ছোড়ে। মামলায় ৬ জনকে আসামী করা হয়। সৈনিকলীগ নেতা মো: ফোরকানের স্ত্রী মামলাটি আদালতে রুজু করে। আর্জিতে আরো বলা হয়েছে, বাদীর স্বামী পৈত্রিক ভিটায় দালান নির্মাণ করে। সেই সময় আসামীরা বাদীর কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। পরবর্তীতে ক্ষিপ্ত হয়ে ১৮ লক্ষ টাকা মূল্যের ১০ টি গৃহপালিত পশু খামার থেকে গভীর রাতে লুট করে নিয়ে যায়। বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগ রাজাখালীর সভাপতি ও খামারী মো: ফোরকান জানান, আমি এ পর্যন্ত তেমন আইনী সহায়তা পাইনি। থানায় অভিযোগ নিয়ে গিয়েছিলাম। পরবর্তীতে কোর্টে যেতে হয়েছে। তবে আমি বিস্মিত হয়েছি গরু লুটের প্রায় ১ মাস হচ্ছে। অথচ এ ঘটনার কোন ক্লু উদঘাটন নিয়ে অমিমাংসিত থেকে গেছে। আমিতো অধিক নিরাপত্তাহীন। অপরাধীরা পার পেয়ে গেলে সমাজে বেড়ে যায় অপরাধ প্রবণতা। নাগরিকদের জানমাল নিয়ে অনেকটা সংশয় ও অনিশ্চয়তা তৈরী হয়। এ ব্যাপারে পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) সুদীপ্ত শেখর ভট্টাচার্য্য জানান, কোর্ট থেকে থানাকে তদন্তভার ন্যস্ত করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলমান রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো ক্যাটাগরি
© All rights reserved © 2024 bbcekottor.com
Technical suported by Mohammad Iliych